BdNewsEveryDay.com
Monday, August 20, 2018

ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়ছে সাগরে

Friday, August 10, 2018 - 240 hours ago

ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়ছে সাগরে ভরা মৌসুমে এখানকার নদীতে ইলিশ না মিললেও শেষ সময়ে সাগরে জেলেদের জালে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ। শেষ সময়ে বোট ভর্তি ইলিশ নিয়ে হাসি মুখে ফিরছে জেলেরা। জেলেদের এ হাসি ছড়িয়ে পড়েছে এখানকার ইলিশ ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের মধ্যে। গত দুদিন ধরে ইলিশ মিললেও বুধবার এখানকার বৃহৎ মৎস্য আড়ত পোর্ট রোডে আড়াই হাজার মনের বেশি ইলিশ বিক্রি হয়েছে বলে জানিয়েছেন এখানকার মৎস্য আড়তদার সমিতির প্রচার সম্পাদক ইলিশ ব্যবসায়ী ইয়ার উদ্দিন সিকদার। তিনি জানান, বর্তমানে সাগরের চাকের যে ইলিশ মিলছে তা ৫০০ গ্রাম থেকে দেড় কেজি পর্যন্ত। এভাবে ইলিশ মিললে বোট মালিক, জেলেসহ পাইকাররাও ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে সক্ষম হবেন। কেননা মৌসুমে ইলিশ পাওয়ার আশায় সবাই ধার-দেনা করে বসে আছেন। কিন্তু মৌসুমের অনেক দিন পার হয়ে গেলেও নদী কিংবা সাগর থেকে ট্রলারগুলো ফিরছিল শূন্য অবস্থায়। সাগর থেকে বোট বোঝাই ইলিশ নিয়ে ফেরা ইউসুফ মাঝি জানান, প্রত্যেকটি বোটে ২৫ থেকে ৩০ মণ ইলিশ বোঝাই করে তারা মোকামে ফিরছেন। এতে তাদের খরচ শেষে লাভের পরিমাণ ভালো থাকছে। একাধিক জেলে জানান, ছোট সাইজের পাশাপাশি বড় সাইজেরও প্রচুর ইলিশ মেলায় তারা ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে সক্ষম হচ্ছেন। গতকাল সাগরের ৫০০ গ্রাম ওজনের প্রতিমণ ১৮ হাজার এবং এক কেজি সাইজের ইলিশ ৫৫ হাজার টাকা প্রতিমণ বিক্রি হয়েছে। মৌসুমের প্রায় তিন মাস অতিবাহিত হলেও ইলিশ না মেলায় এখানকার মানুষ ইলিশের স্বাদ পায়নি। সাগরের নোনা পানির ইলিশের দাম কম হওয়ায় অনেকেই কিনতে পারছেন। বুধবার পোর্ট রোডের মোকামে সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, দাম কম হওয়ায় ৪-৫ জন মিলে একমণ দেড় মণ করে মাছ কিনে ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন। আবার অনেকে খুচরা ২-৪ কেজিও কিনছেন। জেলা মৎস্য দফতরের কর্মকর্তা (ইলিশ) বিমল চন্দ্র দাস জানান, সাগরে প্রচুর পরিমাণে ইলিশ মিলছে বলে তাদের কাছেও তথ্য রয়েছে। তবে সাগরে বর্তমানে বৈরী আবহাওয়া রয়েছে। আবহাওয়ায় স্বাভাবিক হলে গত দুদিন যাবৎ যে ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে তার চেয়েও বেশি পরিমাণে ইলিশ মিলবে। তিনি বলেন, সাগরের পাশাপাশি নদীতেও ইলিশ মিলবে আগামী কয়েক দিনের মধ্যে। বৃহৎ আড়ত মেসার্স মাহিমা এন্টারপ্রাইজের ম্যানেজার বশির আহমেদ জানান, ইলিশ না মেলায় অলস বসেছিল এখানকার দুই সহস্রাধিক শ্রমিক। চলতি সপ্তাহে ট্রলার ভর্তি ইলিশ আসতে শুরু করায় বেকার শ্রমিকরা ব্যস্ত সময় পার করছে। শ্রমিক সাগর জানায়, দীর্ঘদিন কাজ না থাকায় অলস বসে থেকে ধার-দেনা করে সংসার চালিয়েছি। এখন কাজ পাওয়ায় দেনা শোধ করছি। মৎস্য আড়তদার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নীরব হোসেন টুটুল জানান, সাগরে হঠাৎ ইলিশ মেলায় বরফকলে দিন-রাত সমানতালে বরফ উৎপন্ন করে পরিস্থিতি সামাল দিয়েছে। কেননা দীর্ঘদিন ইলিশ না মেলায় বরফকলগুলোর শ্রমিকরা ছুটি নিয়েছিল। ইলিশ মিলতে শুরু করায় প্রথম দিন একটু সমস্যা হলেও পরবর্তীতে শ্রমিকরা দিন-রাত কাজ করায় প্রয়োজনীয় বরফ পাওয়া গেছে।


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018