BdNewsEveryDay.com
Wednesday, December 19, 2018

ইয়েমেন ইস্যুতে জেদ্দা বৈঠকে ইরানের বিরুদ্ধে বিবৃতি: তেহরানের প্রতিক্রিয়া

Friday, August 10, 2018 - 838 hours ago

ইরান সৌদি আরবের জেদ্দায় অনুষ্ঠিত ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা বা ওআইসি'র বৈঠকে প্রকাশিত বিবৃতি প্রত্যাখ্যান করেছে।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি বলেছেন, ইয়েমেনের জনগণের বিরুদ্ধে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের অপরাধযজ্ঞ ধামাচাপা দেয়ার জন্যই ইরানের বিরুদ্ধে বিবৃতি দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, পাশ্চাত্যের দেয়া অত্যাধুনিক অস্ত্র দিয়ে সৌদি আরব বছরের পর বছর ধরে ইয়েমেনে গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে এবং দেশটির গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো ধ্বংস করে দিচ্ছে।

সৌদি আগ্রাসনের জবাবে সম্প্রতি ইয়েমেনের আনসারুল্লাহ যোদ্ধারা লোহিত সাগরে সৌদি আরবের দু'টি তেলবাহী জাহাজে যে হামলা চালিয়েছিল সে ব্যাপারে পর্যালোচনার জন্যই গত বুধবার ওআইসি'র বৈঠক ডাকা হয়েছিল। বৈঠকে সৌদি তেলবাহী জাহাজে হামলার জন্য ইরানকেও অভিযুক্ত করা হয়। ২০১৫ সালের মার্চ থেকে সৌদি আরব ইয়েমেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করার পর এ পর্যন্ত যতগুলো বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে তার সবকটিতে ইরানের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়েছে।

সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইরানের বিরুদ্ধে একদিকে ষড়যন্ত্র অন্যদিকে নানা মিথ্যা অভিযোগ আরোপ করার পাশাপাশি ইয়েমেনের বিরুদ্ধে ধ্বংসাত্মক যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে। সৌদি আরব ভুল হিসাব নিকাশ করে ইয়েমেনে যুদ্ধ শুরু করে দাবি করেছিল এক মাসেরও কম সময়ের মধ্যে তারা সংকটের সমাধান করবে। কিন্তু এখন যুদ্ধ চতুর্থ বছরে গড়িয়েছে এবং নিজেদের ব্যর্থতা ধামাচাপা দেয়ার জন্য বিশ্ব জনমতকে বিভ্রান্ত করা ও অন্য দেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আরোপ করা ছাড়া তাদের আর কোনো উপায় নেই।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, বর্তমানে ইয়েমেন যুদ্ধে শক্তির ক্ষেত্রে ভারসাম্যতা এসেছে। আগ্রাসী শক্তির বিরুদ্ধে ইয়েমেনের যোদ্ধারাও পাল্টা হামলা চালাচ্ছে। সৌদি আরবের বিভিন্ন স্থানে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, ড্রোন হামলা চালিয়ে এমনকি সমুদ্র পথেও পাল্টা আক্রমণ করে ইয়েমেনের যোদ্ধারা নিজেদের শক্তিমত্বার প্রমাণ দিয়েছে এবং শত্রু পক্ষের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে। ইয়েমেনের হুথি নিয়ন্ত্রিত সরকারের মন্ত্রী আহমাদ আল কানেহ বলেছেন, "ইয়েমেনের হুথি সরকার ও আনসারুল্লাহ যোদ্ধারা নিজস্ব প্রযুক্তিতে অস্ত্র তৈরি করায় সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার জন্য সৌদি সরকার অন্য দেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ এবং নানা ছলচাতুরীর আশ্রয় নিয়েছে।"

যাইহোক, সারা বিশ্বের কাছে এটা প্রমাণিত হয়েছে যে, সৌদি আরব ও তাদের মিত্ররা ইয়েমেনে ভয়াবহ অপরাধযজ্ঞ চালাচ্ছে। সর্বশেষ ইয়েমেনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় সা'দা প্রদেশে আগ্রাসী সৌদি বাহিনীর বর্বরোচিত বিমান হামলায় অন্তত ৩৯ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত এবং ৫০ জনেরও বেশি লোক আহত হয়েছে। আন্তর্জাতিক বেসরকারি সংস্থা কেয়ার গত ৩ আগস্ট এক প্রতিবেদনে সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, ইয়েমেনে ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয় শুরু হয়েছে এবং যত দ্রুত সম্ভব সহিংসতার অবসান ঘটানো উচিত।#

পার্সটুডে/রেজওয়ান হোসেন/১০

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018