BdNewsEveryDay.com
Tuesday, October 16, 2018

রেমিটেন্সে ভ্যাট বসেনি: এনবিআর

Wednesday, June 13, 2018 - 838 hours ago

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত গত ৭ জুন জাতীয় সংসদে বাজেট প্রস্তাব করার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রেমিটেন্সে ভ্যাট বসানোর ‘মিথ্যা প্রচার’ হচ্ছে বলে জানিয়েছে এনবিআর।

বুধবার এনবিআরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সের উপর মূল্য সংযোজন কর-মূসক বা ভ্যাট আরোপিত হয়েছে বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত হচ্ছে।

“এটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও গুজব। দেশের বৈধ রেমিটেন্স প্রবাহ বন্ধ করে হুন্ডির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা প্রেরণের অপপ্রয়াস হিসাবে এ প্রচারণা চালানো হতে পারে বলে এনবিআর মনে করে।”

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “মূল্য সংযোজন কর আরোপিত হয় পণ্য বা সেবা সরবরাহের উপর। প্রবাসীরা দেশের বাইরে কঠোর শ্রমের বিনিময়ে যে সেবা দিয়ে থাকেন তার বিনিময়ে বৈদেশিক মুদ্রা আহরিত হয়। এ সম্পূর্ণ কার্যক্রম মূল্য সংযোজন কর আইন, ১৯৯১ এর ধারা ৩ এর উপ-ধারা ২(ক) মোতাবেক সেবা রপ্তানি হিসাবে বিবেচিত।

“সুতরাং এ রপ্তানি কার্যক্রম ভ্যাটের আওতা বহির্ভূত। অর্থাৎ রেমিটেন্স সীমা নির্বিশেষে এ খাতের উপর কোনো ভ্যাট প্রযোজ্য নয়। তাই প্রবাসীরা বৈধ ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে যে কোনো পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা বা রেমিটেন্স প্রেরণ করতে পারেন।”



অবৈধ চ্যানেল বা হুন্ডির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা বা রেমিটেন্স প্রেরণ করা হলে তা জাতীয় অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখতে পারে না। তাই হুন্ডির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা বা রেমিটেন্স প্রেরণ থেকে বিরত থাকার জন্য বিজ্ঞপ্তিতে সবাইকে অনুরোধ করা হয়।

“এনবিআর হুন্ডি বা মানি লন্ডারিং প্রতিরোধের বিষয়ে সবসময় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।”

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, বিদায়ী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ১১ মাসে (জুলাই-মে) বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অবস্থানকারী এক কোটি প্রবাসী এক হাজার ৩৫৭ কোটি ৫২ লাখ ( ১৩ দশমিক ৫৭ বিলিয়ন) ডলার রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন।

এই অংক গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ১৭ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি।


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018