BdNewsEveryDay.com
Sunday, March 24, 2019

পূর্বের নির্বাচনগুলোতে অনিয়ম হওয়ায় ভোটারদের আগ্রহ কম: শাফিন

Thursday, February 28, 2019 - 585 hours ago

পূর্বের নির্বাচনগুলোতে অনিয়ম হওয়ায় ভোটারদের আগ্রহ কম: শাফিন পূর্বের নির্বাচনগুলোতে অনিয়ম হওয়ায় ভোটারদের আগ্রহ কমে গেছে মন্তব্য করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়র প্রার্থী শাফিন আহমেদ বলেছেন, এ দেশে নির্বাচনে অনেক অনিয়ম হয়েছে। গত কয়েকটা নির্বাচনে এত বেশি অনিয়ম হয়েছে আমার মনে হয় ভোটাররা নির্বাচন থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। কারণ তারা মনে করেন তাদের ভোটের কোনো দাম নেই। এই কারণে ভোটারদের আগ্রহ কম। বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে গুলশান-২ অবস্থিত মানারাত ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে নিজের ভোট দেয়ার পর এমন মন্তব্য করেন তিনি। ভোটের পরিবেশ সম্পর্কে শাফিন আহমেদ বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি লক্ষণীয়ভাবে কম। এ দেশের ভোটাররা নির্বাচন থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। তিনি বলেন, মানারাত স্কুলে দুপুর ১২ টা ২০ মিনিটে আমি আমার ভোট দিয়েছি। এর আগে সকালে বেশ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে এসেছি। এখানকার (মানারাত ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ ভোটকেন্দ্রে) পরিবেশ বেশ ভালো দেখলাম। কিন্তু সকালে বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে অনিয়ম দেখেছি। বাকি দিনটা আমি আরও দেখতে চাই, আরও কেন্দ্রে যাব। বাকি কেন্দ্রগুলো দেখে দিনের শেষে আমি সঠিক একটি মতামত দিতে পারবো। তবে ভোটকেন্দ্রে অনিয়ম নিয়ে তৎক্ষণাৎ কোন মন্তব্য করেননি তিনি। শাফিন বলেন, বিকেল পর্যন্ত দেখে এ বিষয়ে আমি আমার মন্তব্য দেব।  নির্বাচন নিয়ে হতাশ নন বলে মন্তব্য করে শাফিন বলেন, আজকে ছুটির দিন ভোটাররা আস্তে ধীরে বের হচ্ছে। হতাশ হওয়ার সময় এখনও আসেনি। দেখা যাক শেষ পর্যন্ত। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটিতে সম্প্রসারিত ১৮টি করে মোট ৩৬টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে সাধারণ নির্বাচন ও উত্তর সিটির ২টি ওয়ার্ডে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এছাড়াও, ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি উভয় সিটিতে ৬টি সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে, মেয়র ও কাউন্সিলর উভয় পদের মেয়াদ হবে এক বছরের চেয়ে কিছু বেশি সময়। ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি নির্বাচনে ৩৬টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিল পদে মোট প্রার্থীর সংখ্যা ৩০৯ জন। দুই সিটিতে ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিল পদে প্রার্থীর সংখ্যা ৭০ জন। এর মধ্যে ডিএনসিসির ১৮টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ১৬০ জন, সমসংখ্যাক ওয়ার্ডে ডিএসসিসিতে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ১৪৯ জন। অন্যদিকে ডিএনসিসি‘র ৬ সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ৪৫ জন এবং ডিএসসিসিতে ২৫ জন। উত্তর সিটির সম্প্রসারিত ১৮টি সম্প্রসারিত ওয়ার্ডের মধ্যে ১৮টি সাধারণ ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ৬ ওয়ার্ডে মোট ভোটকেন্দ্র ২৪৩টি এবং ভোটকক্ষ ১ হাজার ৪৭২টি। মোট ভোটার ৫ লাখ ৯০ হাজার ৭০৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৯৮ হাজার ২৮৫ জন এবং নারী ভোটার ২ লাখ ৯২ হাজার ৪২০ জন। অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটির সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডের মধ্যে সাধারণ ১৮টি ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডে মোট ভোটকেন্দ্র ২৩৫টি এবং ভোটকক্ষ ১ হাজার ২৫২টি। মোট ভোটার ৪ লাখ ৯৬ হাজার ৭৩৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৫৪ হাজার ৪৯৭ জন এবং নারী ভোটার ২ লাখ ৪২ হাজার ২৩৮ জন।  নির্বাচনে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বুধবার সকাল থেকেই দুই সিটিতে টহল শুরু করেছে ভ্রাম্যমাণ ও স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। আগামী ১ মার্চ পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় পুলিশ, এপিবিএন, ব্যাটালিয়ন আনসার, বিজিবি কোস্ট গার্ড ও র‌্যাব দায়িত্ব পালন করবে। ডিএনসিসিতে ২৫ প্লাটুন বিজিবি এবং ডিএসসিসিতে ৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হবে। এছাড়াও দুই সিটির মধ্যে ডিএনিসিসিতে চার প্লাটুন এবং ডিএসসিসিতে তিন প্লাটুন বিজিবি রিজার্ভ ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে। দুই সিটির প্রতিটি সাধারণ কেন্দ্রে ১৯ জন এবং গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ২৩ জন করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকবে। এর মধ্যে প্রতিটি সাধারণ কেন্দ্রে ৭ জন অস্ত্রধারী পুলিশ ও আনসার এবং ১২ জন আনসার সদস্য থাকবে লাঠি হাতে। উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনের আড়াই বছর পর ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর চিকিৎসাধীন অবস্থায় ডিএনসিসির মেয়র আনিসুল হক লন্ডনে মারা যান। এতে আসনটি শূন্য হয়ে পড়ে। অন্যদিকে দুই সিটিতে ২০১৭ সালে ১৮টি করে ৩৬টি নতুন ওয়ার্ড যুক্ত হয়। আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারণে নির্ধারিত সময়ের এক বছর পর গত ২২ জানুয়ারি দুই সিটির তফসিল ঘোষণা করে ইসি। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আজ ডিএনসিসি মেয়র ও দুই সিটির ১৮টি করে ৩৬টি ওয়ার্ডে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018