BdNewsEveryDay.com
Monday, December 17, 2018

পুলিশ কনস্টেবলের সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত

Thursday, December 06, 2018 - 265 hours ago

গ্রামের দরিদ্র শান্তাহার আলী। পেশায় একটি বেসরকারি কোম্পানির এরিয়া ম্যানেজার হিসেবে কাজ করে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে দিনাতিপাত করেন। ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা রামপুর বাজারে বকুল এগ্রো কোম্পানির ডিপো থেকে তিন লক্ষ টাক উত্তোলন করে হেড অফিসে পাঠানোর জন্য মোটরসাইকেলযোগে উপজেলা সদরে ব্যাংকে জমা দেওয়ার জন্য নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে কখন ব্যাগসহ টাকা হারিয়ে গেছে তিনি নিজেও টের পাননি।

ব্যাংকে গিয়ে টাকার ব্যাগ না দেখে দিশেহারা শান্তাহার পাগলের মত খুঁজতে থাকেন টাকা। ব্যাংক থেকে দশ কিলোমিটার হেঁটে হেঁটে খুঁজতে থাকেন তার টাকার ব্যাগ। একই সময় ওই রাস্তা দিয়ে বালিপাড়া থেকে আসছিলেন এক মানবিক পুলিশ সদস্য শাহাদাত আলমগীর। পথিমধ্যে ব্যাগ পড়ে থাকতে দেখে উঠিয়ে দেখেন সেখানে তিন লক্ষ টাকা আছে। সাবেক এই পুলিশ সদস্য টাকা পেয়ে ত্রিশালে আসার পথে প্রতি মোড়ে মোড়ে নিজেই দাঁড়িয়ে বলে আসছিলেন কিছু টাকা পেয়েছি উপযুক্ত প্রমাণ দিয়ে নিয়ে যাবেন। এ সময় তিনি ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ডে এসে স্থানীয় ত্রিশাল বার্তা পত্রিকার কার্যালয়ে টাকাগুলো জমা রেখে যান।

বিষয়টি জানাজানি হলে বুধবার সন্ধ্যায় টাকা হারিয়ে পাগলপ্রায় শান্তাহার ত্রিশাল বার্তা কার্যালয়ে ছুটে গেলে পুলিশ সদস্য শাহাদাত আলমগীরের উপস্থিতিতে উপযুক্ত প্রমাণ দিয়ে টাকাগুলো নিয়ে যান। এ সময় দরিদ্র শান্তাহারের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে গিয়ে আবেগআব্লুত হয়ে পড়েন। সেখানে উপস্থিত সকলে মানবিকতা ও সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপনের জন্য পুলিশ সদস্যকে অভিনন্দন জানান।

শান্তাহার আলী কালের কণ্ঠকে বলেন, এ টাকাটা না পেলে আমার চাকরিটা চলে যেত। কোম্পানি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে হয়রানি করত এবং আমার এই টাকা ফেরৎ দিতে হত। আমি দরিদ্র আমার পক্ষে এ টাকার যোগান দেওয়া সম্ভব ছিল না।

পুলিশের এই সাবেক সদস্য বলেন, নিজের দায়িত্বানুভুতি থেকেই এই কাজটুকু করেছি। 


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018