BdNewsEveryDay.com
Tuesday, December 11, 2018

রমজানে বাজার মনিটরিং : ফেনীতে ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড

Wednesday, May 16, 2018 - 838 hours ago

ফেনীতে রমজানে মূল্য বৃদ্ধি, ভেজাল রোধ ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণে আজ বাজার মনিটরিং কার্যক্রম পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন, ফেনী। এই মনিটরিং ও অভিযানের নেতৃত্ব প্রদান করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা।

এ সময় পচা ও মানহীন খেজুর বিক্রির অপরাধে ইসলামপুর রোডের ইব্রাহিম ট্রেডার্স এর মো: ইব্রাহিমকে (৩৮) এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করে আদালত। জব্দ করা হয় ৬০ কে. জি. পচা খেজুর। 

এ সময় ফেনীর সর্ববৃহৎ খুচরা বাজার এ রোযায় যে সকল পণ্য বিক্রি করা হয় সেগুলোর দাম মনিটরিং করা হয়। দেখা যায় অনেকেই মূল্য তালিকা প্রদর্শন করছেন না। 

ফেনীর ভিতরের বাজারে দুই সবজি ব্যবসায়ী ও এক দোকানিকে  মূল্য তালিকা না টানানোর অপরাধে ৫০০০ টাকা করে মোট ১৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। দণ্ডিতরা হলেন আব্দুল করিম (১৮),  জাহাংগীর হোসেন (৩৩), মীর হোসেন (২৮)। 

মনিটরিং করা হয় ফেনীর ডাক্তার পাড়া সংলগ্ন মুক্ত বাজার। এ সময় এই বাজারের চারটি দোকান থেকে মোবাইল কোর্টের পূর্বেই কিছু পণ্য ক্রয় করা হয়। এ সময় দেখা যায় যে,  কেউ কেউ মূল্য তালিকায় প্রদর্শিত মূল্য অনুযায়ী বিক্রি করছেন না। আবার কেউ কেউ নির্ধারিত যৌক্তিক মূল্যের চেয়ে বেশি দামে পণ্য বিক্রি করছেন। এ সময় জসিম উদ্দিন (২৮) নামে এক দোকানি তালিকায় রসুনের মূল্য লেখেন ৮০ টাকা। অথচ বিক্রি করেন ১০০ টাকায়। আদালত জসিম উদ্দিনকে  ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেন। এছাড়াও কামাল উদ্দিনকে ( ৬০) তালিকায় প্রদর্শিত চিনির মূল্যের ৫৪ টাকার চিনি  ৬০ টাকা বিক্রি করায় ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। বেগুনের যৌক্তিক মূল্য ৫৫ থেকে বাড়িয়ে ৭০ টাকায় বিক্রি করায় আলাউদ্দিন পাটোয়ারিকে (৭০)  ৫ হাজার টাকা ও তালিকায় প্রদর্শিত টমেটোর মূল্যের চেয়ে ৪৫ থেকে বাড়িয়ে  ৫০ টাকা বিক্রি করায় মানিক উল হককে (৩০) ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করে আদালত। 

এ সময় বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে সবজি মূল্য বৃদ্ধি করা হচ্ছে এমন অভিযোগ পাওয়া যায় আড়তদারদের বিরুদ্ধে।  এ সময় মনিটরিং করা  হয় শহরের সর্ববৃহৎ আড়ত দাউদপুর কাচা বাজারে। আড়তের সবগুলো (২০ জন)  আড়তদারকে প্রতিষ্ঠানে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করার দায়ে ২০ হাজার টাকা করে মোট  চার লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। 

এর পূর্বে মহিপালের মেসার্স এইম এন্টারপ্রাইজ মো: হুমায়ূন কবির ভূইয়াকে (৩৫) আল্ট্রা সুপার ও শারলু ইঞ্জিন তেল নকল করে বিক্রির দায়ে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। দোকানের পেছনেই রং মিশ্রিত করে ভেজাল মোবিল বিক্রয় করে আসছিলেন তিনি।

অভিযানে জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর সুজন বড়ুয়া, পৌরসভা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর কৃষ্ণময়  বণিক ও জেলা পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018