BdNewsEveryDay.com
Sunday, October 21, 2018

যৌন নিপীড়ক পরিচালকের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করলেন আমির খান

Thursday, October 11, 2018 - 225 hours ago

'#মিটু' আন্দোলনে শরীক হয়ে গেলেন বলিউডের 'মি. পারফেকশনিস্ট' খ্যাত আমির খান। বলিউড পরিচালক সুভাষ কাপুরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছিলেন অভিনেত্রী গীতিকা ত্যাগী। সেই পরিচালকের সঙ্গেই কাজ করার কথা ছিল আমির খানের। গুলশান কুমারের বায়োপিক 'মোগুল' পরিচালনা করার কথা ছিল সুভাষের। মনে করা হচ্ছে, অভিযোগ জানার পরই সেই বায়োপিক থেকেই সরে দাঁড়িয়েছেন মিস্টার পারফেকশনিস্ট।

মিটু নিয়ে ইতিমধ্যেই সরগরম বলিউড। একের পর এক অভিযোগ জমা পড়ছে পরিচালক, প্রযোজক, গায়ক কিংবা নায়কের বিরুদ্ধে। প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া-অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পর বিতর্কে উত্তাল বলিউড। এর মাঝেই গীতিকা ত্যাগী সম্প্রতি আমিরের স্ত্রী কিরণকে টুইটারে একটি অভিযোগে জানিয়েছিলেন সুভাষ কী ভাবে তাকে হেনস্থা করেছিলেন।অনুমান করা হচ্ছে, এর পরই আমির ও কিরণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, ছবিটি থেকে সরে আসার। আমির অভিনয়ও করবেন না। প্রযোজনাও না।

কিরণ বলেন, 'আমির খানের প্রযোজনা সংস্থা সবসময় যৌন হেনস্থা বা শারীরিক নিগ্রহের ঘটনায় 'জিরো টলারেন্স' নীতিতে বিশ্বাসী।আমাদের কাছে একজনের সম্পর্কে খবর আসা মাত্রই সরে আসার সিদ্ধান্ত নিই। কারণ যাঁর সঙ্গে কাজ করতে যাচ্ছি, অভিযোগের আঙুল তার দিকেই।' এই এক জন যে সুভাষ কাপুর এমনটাই মনে করা হচ্ছে। আদালতের পক্ষ থেকে যদিও এখনও পরিচালকের বিরুদ্ধে কোনো রায় দেওয়া হয়নি।'

অন্যদিকে সুভাষ কাপুর একটি টুইটবার্তায় বলেছেন, আমির খান ও কিরণের সিদ্ধান্তকে তিনি শ্রদ্ধা করেন। আদালতেই প্রমাণ হয়ে যাবে তার কোনো দোষ নেই।

২০১৪ সালে গীতিকা সুভাষের বিরুদ্ধে এফআইআর করেছিলেন। এত দিন আমির বা কিরণের তা অজানা ছিল কি না, তা নিয়ে যদিও প্রশ্ন তুলছেন কেউ কেউ। এরপরেই গীতিকা ত্যাগী একটি ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করেছিলেন। তাতে দেখা গিয়েছিল, তিনি প্রতিবাদ জানাচ্ছেন এবং চড় মারছেন সুভাষকে। এই প্রসঙ্গে পরিচালক বলেন, 'কোনো নারীর অনুমতি ছাড়া তার ভিডিও ধারণ করলে সেটাও কি হেনস্থা নয়? এটা তো খাপ পঞ্চায়েতের মানসিকতা।'


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018