BdNewsEveryDay.com
Monday, December 10, 2018

রাফায়েল যুদ্ধবিমান দুর্নীতি: নরেন্দ্র মোদির ইস্তফা চাইলেন রাহুল গান্ধী

Thursday, October 11, 2018 - 838 hours ago

ভারত ও ফ্রান্সের মধ্যে রাফায়েল যুদ্ধবিমান ক্রয় চুক্তিতে দুর্নীতির অভিযোগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ইস্তফা দাবি করেছেন প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী। তিনি আজ (বৃহস্পতিবার) দলীয় সদর দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে ওই দাবি জানান।

রাহুল বলেন, ‘আমি দেশের তরুণদের বলতে চাই যে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতিগ্রস্ত। তরুণরা কর্মসংস্থান খুঁজছেন আর প্রধানমন্ত্রী শিল্পপতি অনিল আম্বানির ‘চৌকিদারি’ করছেন। রাফায়েল চুক্তির মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি অনিল আম্বানির পকেটে ৩০ হাজার কোটি টাকা দিয়েছেন।’

প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ তড়ঘড়ি করে এসময় ফ্রান্সে কেন গেছেন রাহুল আজ সেই প্রশ্ন উত্থাপন করেন। রাহুল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দুর্নীতির ঘটনাকে ইস্যু করে ক্ষমতায় এসেছিলেন। আজ তিনিই দুর্নীতির অভিযোগের মুখে পড়েছেন। তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তা নিয়ে তার কথা বলা উচিত। প্রধানমন্ত্রী যদি ওই বিষয়ে কিছু না বলতে পারেন তাহলে তিনি ইস্তফা  দিন।’

তিনি বলেন, রাফায়েল চুক্তি স্পষ্টভাবেই প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত দুর্নীতির বিষয়। ওই দুর্নীতিকে বোঝার জন্য সব কিছু সামনে আছে। ধীরে ধীরে ওই বিষয়ে গরমিল প্রকাশ্যে আসছে। কংগ্রেস ওই বিষয়ে যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠন করে তদন্তের দাবি জানিয়েছিল। কিন্তু বিজেপি তা থেকে পিছু হটেছে।’ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশের কৃষক, যুবক ও গরীবদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন বলেও রাহুল গান্ধী অভিযোগ করেছেন।

২০১৬ সালে ভারত ও ফ্রান্সের মধ্যে রাফায়েল যুদ্ধবিমান চুক্তির কথা প্রকাশ্যে আসে। ৩৬ টি বিমানের জন্য ৫৯ হাজার কোটি টাকার চুক্তি হয়। এধরণের প্রতিরক্ষা চুক্তিতে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা হিন্দুস্থান এরোনটিক্স লিমিটেডকে (হ্যাল) এড়িয়ে কেন  শিল্পপতি অনিল আম্বানির অনভিজ্ঞ সংস্থাকে বরাত দেয়া হল তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জোরালো প্রশ্ন উঠেছে। অনিল আম্বানিকে প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত সরঞ্জাম সরবরাহের বরাত পাইয়ে দেয়া হয়েছে এবং এর নেপথ্যে খোদ প্রধানমন্ত্রীর হাত রয়েছে বলে বিরোধীদের অভিযোগ। কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ অবশ্য রাফায়েল চুক্তিতে  কোনো দুর্নীতি হয়নি বলে দাবি করেছেন। #

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/১১

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018