BdNewsEveryDay.com
Friday, November 16, 2018

সাংবাদিকদের কাদের নালিশ করতে করতে বিএনপি এখন দেউলিয়া

Friday, September 14, 2018 - 838 hours ago

সাংবাদিকদের কাদের নালিশ করতে করতে বিএনপি এখন দেউলিয়া যুক্তরাষ্ট্রে তদবির করতে বিএনপির লবিস্ট নিয়োগ করার বিষয়ে প্রশ্ন তুলে এই লবিস্ট নিয়োগের টাকা তারা কোথা থেকে পেয়েছে জানতে চেয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। কারো চাপের মুখে বাংলাদেশ মাথানত করবে না মন্তব্য করে কাদের বলেন, বাংলাদেশের জনগণ আমাদের চাপ দিতে পারে। কিন্তু আমরা অন্য কারো চাপের কাছে নতিস্বীকার করবো না। বাংলাদেশের সমস্যা আমরা এখানেই সমাধান করবো। তিনি বলেন, বিএনপি নালিশ করতে করতে এখন দেউলিয়া হয়ে পড়েছে, তবে আর্থিকভাবে দেউলিয়া হয়নি। এ জন্য মোটা অংকের অর্থ বিনিয়োগ করে লবিস্ট নিয়োগ করছে। তিনি গতকাল শুক্রবার ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সম্পাদকম-লীর সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।  এ সময় উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ ও জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বাহাউদ্দিন নাছিম, বি এম মোজাম্মেল, প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, শ্রম সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল প্রমুখ। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন পালনের কর্মসূচি নির্ধারণ করতে এ বৈঠকের আয়োজন করা হয়। জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনকে বাংলাদেশের সামগ্রিক বিষয় অবহিত করতে বিএনপি ওয়াশিংটনে একটি লবিস্ট ফার্ম ভাড়া করেছে বলে বৃহস্পতিবার রাজনীতিবিষয়ক ম্যাগাজিন ‘পলিটিকো’ এ খবর প্রকাশ করেছে। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, সব আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে বিএনপির কয়েকজন নেতা এখন অভিযোগ করতে জাতিসংঘে গেছেন। এতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। তারা লবিং করতে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে, এটা নিয়ে আমাদের কোনো মন্তব্য নেই। তবে প্রশ্ন হলো এত টাকা তারা কোথা থেকে পায়? ওয়াশিংটনে দুটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে লবিংয়ের জন্য বিএনপি চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। একবারে ২০ হাজার ডলার, আবার প্রতি মাসে ৩৫ হাজার ডলারের বিনিময়ে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বিএনপি। এটা কি তারা পারেন? এটার কি কোনো প্রয়োজন আছে? বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদের আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটানোর হুমকির বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘মওদুদ সাহেব ইতিহাসের এক বহুরূপী ব্যক্তি। যিনি আন্দোলন শুরু হওয়ার আগে বিদেশে পালিয়ে যান, তার নাম মওদুদ আহমদ। আর যে দলের নেতাদের মধ্যেই ঐক্য নাই, সেই দলকে নিয়ে কীভাবে জাতীয় ঐক্য হবে সে প্রশ্ন রাখেন ওবায়দুল কাদের।’ বাংলাদেশ সরকারকে চাপ দিতে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের কাছে বিএনপি লবিং করবে অভিযোগ তুলে কাদের বলেন, আমি স্পষ্টভাবে বলতে চাই, আমাদের ভিত এবং আমাদের শেকড় দুর্বল নয়। আমাদের শেকড় বাংলাদেশের মাটির অনেক গভীরে। আমাদের চাপ দিতে পারে বাংলাদেশের জনগণ। আমরা অন্য কারো চাপের কাছে নতিস্বীকার করবো না। তিনি প্রশ্ন তুলে বলেন, বাংলাদেশ কি পাকিস্তান? বাংলাদেশ কি আফগানিস্তান? বাংলাদেশ কি সুদান বা দক্ষিণ সুদান, বাংলাদেশ কি সোমালিয়া, বাংলাদেশ কি যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাক বা ইরান? বাংলাদেশের সমস্যা আমরা এখানেই সমাধান করবো।


bdnewseveryday.com © 2017 - 2018